জেনে নেই নিম-হলুদের গুণাগুণ!!

0
24
article_top

আমাদের খুব পরিচিত দুইটি নাম নিম এবং হলুদ। একটি আমাদের প্রতিদিনের ব্যবহারের মসলা আর একটি বিভিন্ন কাজে ব্যবহার হয়ে থাকে। নিম-হলুদ ব্যবহার হয়ে থাকে রূপচর্চা ক্যামিস্ট হিসেবে। শুধু রূপচর্চা ছাড়াও নিম ও হলুদের আছে অনেক পুষ্টি গুণাগুণ।

কাচাঁ হলুদ

article_inline

হলুদের কার্যকারিতার কথা বলে শেষ করা যাবে না। অসাধারণ সব পুষ্টি গুণে ভরপুর। হলুদে থাকে এক ধরনের এসেনসিয়াল তৈল যার নাম হলো কারকিউমিন। যে ধলুদের রং যত গাঢ় তাতে কারকিউমিনের পরিমাণ তত বেশি। আর এই কারকিউমিন হলো ঔষধি গুণাগুণসম্পন্ন। বাংলাদেশে যে হলুদ উৎপাদন হয় তাতে কারকিউমিনের পরিমাণ থাকে ২-৩ শতাংশ।

কারকিউমিন শরীরে ডিটক্স হিসেবে কাজ করে যা আমাদের শরীরের যে সব বিষাক্ত পদার্থ জমে তা দুর করে শরীরকে সুরুক্ষা করে। হজমজনিত সমস্যা, আলসার বা এই জাতীয় শারীরিক অসুস্থতার ক্ষেত্রে হলুদ বেশ কার্যকর। কাচাঁ হলুদ খেতে হলে গরম পানিতে ধুয়ে খুসা ছাড়িয়ে তারপর খেলে বেস উপকার পাওয়া যায়।

যাদের অ্যালার্জির সমস্য আছে তারা হলুদের রস ও নিমের রস জ্বাল দিয়ে একসঙ্গে মিশিয়ে সংরক্ষণ করতে পারেন। তা গোসলের সময় পানিতে নিয়মিত ব্যবহার করলে অ্যালার্জির সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন। শরীরিরে ফাটা থাকলে  হলুদ ও নিমের রস সমপরিমাণে জ্বাল দিয়ে তাতে সমপরিমাণ তিলের তেল মিশিয়ে শরীরের ফাটা অংশগুলোতে প্রতি রাতে ব্যবহার করলে এই সমস্যার দ্রুত ও কার্যকর সমাধান হবে।

হলুদ খাওয়া ছাড়াও বাহ্যিক ব্যবহারেও অনেক উপকার পাওয়া যায়। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে হলুদের ব্যবহার খুবই উপকার করে থাকে। প্রাচীন কাল থেকেই হলুদ ঔষধি উপকরণ হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে।

নিমপাতা

অতি প্রাচীন কাল থেকেই নিম ঔষধির উপকরণ হিসেবে ব্যবহার হয়ে আসছে। কথায় আছে নিম গাছের বাতাসেও নাকি রোগ থেকে মুক্তি হয়, হ্যা সত্যিই তাই।

নিমপাতার বড়িতে ক্লোরোফিলের থাকে যা শরীরিরের বিভিন্ন রোগের প্রতিরোধক হিসেবে বেশ কাজ করে থাকে। রসনু, কাচা মরিচের সাথে নিমের পাঁচটি কচি পাতা ভর্তা করে গরম ভাতের সাথে খেলে গুটিবসন্ত, ঘামাচি ও সারা বছর শরীরের  রোগ প্রতিরোধ করে।

যারা সারা বছর খুশকির সমস্যই ভোগে তাদের জন্য নিমপাতা খুবই কার্যকারী। নিমপাতা জ্বাল দিয়ে পানির রং সবুজ হলে ফ্রিজে রেখে দিয়ে তা সারা বছর ব্যবহার করা যায়। শুধু খুশকিই নয় উকুনের হাত থেকে রেহায় পেতে নিমপাতার রস বিশেষ কাজে দেয়। এছাড়া নিমপাতার রস চুল পড়া থেকে রক্ষা করে।

article_bottom

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here