HEADLINES

HOTBDNEWS- দেশজুড়ে--আন্তর্জাতিক--রাজনীতি--স্বাস্থ্য--শিক্ষা--করোনা--খেলাধুলা--বিনোদন--আবহাওয়া--

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও সভাপতিমন্ডলির সদস্য সাহারা খাতুন আর নেই:-:

দ্বিতীয় দিনের বৈঠক ও ফলাফল শুণ্য, লাদাখে আরও শক্তি বাড়াচ্ছে চীন:

দ্বিতীয় দিনের বৈঠক ও ফলাফল শুণ্য
দ্বিতীয় দিনের বৈঠক ও ফলাফল শুণ্য

লাদাখের গলওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষের পর গত কয়েকদিন থেকে ভারত ও চীনের মধ্যকার উত্তেজনা কিছুটা কমলেও সমস্যার সমাধান এখনো হয়নি। 

বুধবারের (১৯ জুন) বৃহস্পতিবারও ভারত-চীন মেজর জেনারেল পর্যায়ের বৈঠকও নিষ্ফল হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ জুন) প্রায় ছয় ঘন্টা দু’দেশের সেনাকর্তারা বৈঠক করেন। কিন্তু তার পরেও পূর্ব লাদাখে ভারতের জমি ছেড়ে যাওয়ার কোনও লক্ষণ দেখায়নি চীন সেনা। উল্টো দখল করা ভুখণ্ডে নিজেদের শক্তি আরও বাড়িয়েছে চীন। এমনই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

এদিকে এই অবস্থায় পাল্টা পেশিশক্তি দেখাতে আজ ১২টি সুখোই ও ২১টি মিগ-২৯ যুদ্ধবিমান চেয়ে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কাছে প্রস্তাব জমা দিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। যা কিনতে খরচ হবে ৫ হাজার কোটি টাকা। 

কয়েক স্কোয়াড্রন সুখোই এখন সীমান্ত সংলগ্ন ফরওয়ার্ড বেসগুলিতে এনে রাখা হয়েছে। আগামী মাস থেকে অত্যাধুনিক রাফাল বিমানও আসতে শুরু করবে বলে জানিয়েছে ভারতীয় বিমানবাহিনী।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ন বলেছেন, গলওয়ান উপত্যকায় যে গভীর উদ্বেগ জনক সংঘাত ঘটেছে। বিষয়টি নিয়ে দু’দেশেই যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার ব্যাপারে সহমত রয়েছে।  শান্তি সুরক্ষিত রাখা ও উত্তেজনা বন্ধে আলোচনা চলছে।

প্রসঙ্গত, সোমবার (১৫ জুন)  রাতে লাদাখ সীমান্তের গলওয়ান উপত্যকায় দু-দেশের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে অন্তত ২০ ভারতীয় সেনা নিহত হন। গলওয়ান উপত্যকায় চীনা বাহিনীর একটি তাবু সরানোকে কেন্দ্র করেই এ সংঘর্ষ বাধে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

উল্লেখ্য, চীন ও ভারতের মধ্যে সর্বশেষ সংঘাত হয়েছিল ১৯৭৫। তখন ভারত-চীন সীমান্তে শেষবার কোনও সেনা জওয়ানের মৃত্যু হয়েছিল। এরপর থেকে ওয়েস্টার্ন সেক্টরে লাদাখে বা ইস্টার্ন সেক্টরে অরুণাচলে দুই দেশের বাহিনীর মধ্যে হাতাহাতি-মারামারি কম হয়নি। কিন্তু এ ধরনের প্রাণঘাতী মারামারি কখনও হয়নি।

তবে এই সংঘাতে কোনও পক্ষই আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করেনি। লোহার রড, লাঠি, পাথর নিয়ে হামলা করেছে চীনা সেনা। তারপরই প্রত্যাঘাত করেছে ভারতীয় সেনারা।

ভারত ও চীনের মধ্যে সাম্প্রতিক উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে দেশ দুটি বেশ কিছুদিন ধরে সীমান্তে ভারী অস্ত্র মজুত করেছে। পূর্ব লাদাখের সীমান্ত অঞ্চলে ধীরে ধীরে এসব অস্ত্র নিয়েছে দুই দেশ। ভারী অস্ত্রের মধ্যে কামান এবং যুদ্ধের গাড়িও রয়েছে।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর সূত্রের বরাত দিয়ে দেশটির গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘাতের পরিবেশ বিরাজ করায় এসব অস্ত্রের মজুত করা হয়েছে।

কিছুদিন আগে ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছিল, চীন সেনাবাহিনী সীমান্তের যে এলাকায় রয়েছে সেখান থেকে ভারতের অংশে ঢুকতে মাত্র কয়েক ঘণ্টা লাগবে। লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলের বিভিন্ন জায়গায় ভারতের সঙ্গে সংঘর্ষেও জড়াচ্ছে চীনা বাহিনী।

ভারতীয় সূত্রের বরাতে খবরে বলা হয়, চীনের সেনাবাহিনী লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলের কাছের ঘাঁটিগুলিতে নানান যুদ্ধের গাড়ি ও ভারী যুদ্ধের সরঞ্জাম নিয়ে এসেছে। বিষয়টি জানতে পেরে ভারতও আর্টিলারের মতো অস্ত্র ওই এলাকায় পাঠিয়েছে।

নিউজ, হট বিডি নিউজ, করোনা সংবাদ,  করোনা আপডেট, দেশ-বিদেশের খবর, স্বাস্থ্য সংবাদ, বিডি নিউজ, দেশজুড়ে, খেলাধুলা, আন্তর্জাতিক,বিনোদন, আবহাওয়া।,
Hot BD News, Bangladesh News, Online News, Corona Virus News, World Corona Virus News, BD News, BD 24 Hours, entertainment.

Post a comment

0 Comments